ভারতের কাছে বিশ্বকাপ বিক্রির অভিযোগ : যা বললেন সাঙ্গাকারা

30

২০১১ সালের বিশ্বকাপের ফাইনালে ভারতের কাছে হেরে গিয়েছিল শ্রীলঙ্কা। তবে সম্প্রতি অভিযোগ ওঠে, শ্রীলঙ্কা টাকার বিনিময়ে ওই বিশ্বকাপটি ভারতের কাছে বিক্রি করে দিয়েছিল। এমন অভিযোগ করেন ক্ষোদ শ্রীলঙ্কার সাবেক ক্রীড়ামন্ত্রী মাহিন্দনন্দা আলুথগামাগে।

সাবেক ক্রীড়ামন্ত্রীর এমন বিস্ফোরক দাবির পর তদন্ত শুরু করে শ্রীলঙ্কা সরকার। তদন্তের প্রয়োজনে জিজ্ঞাসাবাদ করা ওই বিশ্বকাপে লঙ্কান দলকে নেতৃত্ব দেওয়া কুমার সাঙ্গাকারা, সিনিয়র ব্যাটসম্যান মাহেলা জয়াবর্ধনে, ওপেনার উপুল থারাঙ্গাকে। এমনকি প্রধান নির্বাচক অরবিন্দ ডি সিলভাকেও পুলিশি জেরার মুখে পড়তে হয়েছে।

তবে শেষ পর্যন্ত তদন্তে পাওয়া যায়নি তেমন কিছুই। উপযুক্ত তথ্য প্রমাণের অভাবে গত ২ জুলাই তদন্ত কার্যক্রম বাতিল ঘোষণা করে পুলিশ। তবে সাঙ্গাকারার মতো একজন ব্যক্তিত্ব ম্যাচ ফিক্সিংয়ের অভিযোগে পুলিশি তদন্তের মুখে পড়বেন, এটা মেনে নিতে পারছেন না তার অনেক ভক্তই।

যেখানেই যান, এই প্রশ্নটার মুখে পড়তেই হয় মেরিলিবোন ক্রিকেট ক্লাবের (এমসিসি) প্রেসিডেন্ট সাঙ্গাকারাকে। তবে তদন্তের প্রয়োজনে জিজ্ঞাসাবাদের মুখে পড়ার বিষয়টিকে ইতিবাচক হিসেবেই দেখছেন শ্রীলঙ্কার সাবেক অধিনায়ক। তার মতে, ক্রিকেটের ভালোর জন্য এটা হতেই পারে।

এ ব্যাপারে ক্রিকবাজকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে সাঙ্গাকারা বলেন, ‘এটা হতাশাজনক, সেই সঙ্গে কিছুটা কৌতুহলী ব্যাপার ছিল। কেননা আমাদের সাবেক ক্রীড়ামন্ত্রী সম্প্রতি উদ্ভট একটা দাবি তুলেছিলেন। ফলে আমাদের সেখানে গিয়ে প্রশ্নের জবাব দিতে হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘আসলে এই প্রক্রিয়ার মধ্যে যাওয়া এবং প্রশ্নের উত্তর দেওয়া, এসব বিবৃতি-সব কিছুই সত্যি সত্যি ক্রিকেটের ভালোর জন্য। সেটা হোক আমাকে, নির্বাচক, মাহেলা কিংবা যাকেই করা হোক না কেন। আমার মনে হয়, খেলাটার প্রতি শ্রদ্ধার ব্যাপারটা কি, সেটি মানুষকে বোঝাতেও এই প্রক্রিয়াটা খুব গুরুত্বপূর্ণ।’

শ্রীলঙ্কার সাবেক অধিনায়ক বরং দুর্নীতিপরায়নদের বিরুদ্ধে তার শক্ত অবস্থানই তুলে ধরে সাঙ্গাকারা বলেন, ‘ক্রিকেটে সৎ মানুষের দরকার আছে। এমন মানুষের দরকার যারা মনের কথা বলতে ভয় পায় না। কোনো বিষয়ে উত্তর দিতে হলে নিজেকে লুকানোর প্রয়োজন নেই। আপনি যে কোনো প্রশ্নেরই জবাব দিতে পারেন।’

মতামত দিন

avatar