সুশান্তের মৃত্যুর তদন্তে সামনে এলো চাঞ্চল্যকর তথ্য!

31

বলিউডের অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুত মারা যাওয়ার এক মাসের বেশি সময় পর পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদের মুখে পড়লেন তার সাইকিয়াট্রিস্ট (মনোরোগ বিশেষজ্ঞ)। শুক্রবার বান্দ্রা থানায় ডেকে পাছানো হয়েছিল তাকে। সুশান্তের মানসিক অবস্থা, তার ডিপ্রেশন সম্পর্কে খোঁজ নিতেই পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদ করে করসি চাবরাকে।

তিনি জানান, মৃত্যুর মাস ছয়েক আগে থেকেই ক্লিনিক্যাল ডিপ্রেশনে ভুগছিলেন সুশান্ত। সেই সময় একাধিক মনোরোগ বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিয়েছেন তিনি।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের সূত্রে জানা গেছে, পুলিশি জেরায় ওঠে এসেছে গত বছর অক্টোবর মুম্বাইয়ের এক হাসপাতালে মানসিক অবসাদের চিকিৎসার জন্য ভর্তি হয়েছিলেন সুশান্ত। গত এক বছরে প্রায় ৫ জন মনোবিদের পরামর্শ নিয়েছেন তিনি।

জেরায় এই চিকিৎক জানিয়েছেন, মানসিকভাবে ভীষণ বিধ্বস্ত ছিলেন সুশান্ত। রাতে ঘুম হতো না তার। সবসময় তার ভেতর সংশয় ও দোটানা ভাব কাজ করতো এবং কোনো বিষয় নিয়ে প্রায়ই সন্দেহ কাজ করতো তার মনে। তার চেম্বারে দেখা করার সময় বান্ধবী রিয়া চক্রবর্তীও তার সঙ্গেও থাকতেন।

গত ১৪ জুন সুশান্তের বান্দ্রার অ্যাপার্টমেন্ট থেকে উদ্ধার হয়েছিল প্রয়াত অভিনেতার দেহ। মৃত্যুর আগের ছয় মাস ধরে ক্লিনিক্যাল ডিপ্রেশনে ভুগছিলেন সুশান্ত। এখন পর্যন্ত পুলিশি তদন্তে যা তথ্য উঠে এসেছে- আত্মহত্যাই করেছেন অভিনেতা। কিন্তু মেলেনি কোন সুইসাইড নোট। আত্মহত্যার কারণ খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

জানা গেছে, সুশান্তের বান্দ্রার অ্যাপার্টমেন্টেই কয়েক মাস ধরে থাকছিলেন রিয়া। কিন্তু সুশান্তের মৃত্যুর কয়েক দিন আগেই সেখান থেকে চলে যান তিনি। পুলিশ সূত্রের খবর, মৃত্যুর আগের রাতে এবং মৃত্যুর দিন দুইবার রিয়াকে ফোন করেছিলেন সুশান্ত। তবে দুবারই ফোনের ওপার থেকে কোনো জবাব আসেনি।

মতামত দিন

avatar